Poem

নীরব মধ্যাহ্নে

2 years ago

0
হে রুদ্র ভৈরব -
তব প্রখর দহন দানে 
ক্লান্ত ধরিত্রী কোণে ,
একা বসি বাতায়নে ,
করিতেছি স্মৃতি রােমন্থন , 
একান্তে হৃদয় পীড়া  
করিছে দহন দেহ- মন
হৃদয়ের বাসনা-কামনা যত
করে আলােড়ন ----
নাই বন্ধু , নাই সখা আজ 
অবসর জীবনে আসি , 
শুধু অশ্রুজলে ভাসি, 
বিরাম বিহীন তৃষা 
পুরায় সে আশা---
একাকীত্ব গ্রাস করে 
নীরব মধ্যাহ্নের মর্ম বেদনা । 

শীর্ণ - জীর্ণ দেহে বসি
অলস মধ্যাহ্নে করেছি যাপন , 
অদূরে শীর্ণকায় গাে-বৎস এক 
চরিছে আপন মনে ---
পুচ্ছ দুলাইয়া , মাতৃক্রোড় ছাড়ি , 
খর তাপ তুচ্ছ করি , 
একান্তে বিচরিছে অতি সংগােপনে । 
টলিতে টলিতে চলে ---
শ্রমিকের দল নব নির্মিত

রাজপথ পরে ----
কর্মশেষে খাদ্যাহাষণে - 
অদূরে ঝুপড়ির পানে , 
অন্ন - জল ভিন্ন প্রাণ
বাঁচে নাকো এইক্ষণে ।

পুন্যার্থী আসিছে কত , 
ধর্মান্ধের জালে বিদ্ধ 
ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র সফরীর মত , 
যন্ত্র দানবের জালা---
করিছে দংশন মুহুর্মুহু  
বিকট গর্জন তার - 
নভস্থল বিদারিয়া করিছে
দহন প্রখর মধ্যাহ্নে।

জটাজাল বিস্তারিয়া 
হে রুদ্র ভৈরব – 
ধংস কর । মুক্ত কর -- 
এ ক্ষদ্র মানব সন্তানে 
স্বার্থান্ধের নাগপাশ হতে 
এ খর তাপে , বৈশাখের
তপ্ত দ্বি - প্রহরে । 
নাহি ক্লান্তি , নাহি মুক্তি 
নাহি কোন প্রতিবাদ--- 
যেন পারাবার ।
তীর্থ যাত্রী দল---পড়িছে আছড়ি
সময়ের স্রোতে - কালের
করাল গ্রাসে - রুদ্ধ নিঃশ্বাসে
প্রলয়ের অভিঘাতে - ক্ষণিকের তরে ।

জীবন আসিল শেষে,
বিকৃত মস্তিষ্ক এক, তীব্র করাঘাতে
ভাঙিল মনের ভুল,
বিকট গর্জনে, টুটিল মনের সাধ,
ক্ষণিকের তরে -----
এ  খরতাপক্লিষ্ট দ্বি-প্রহরে ।

এ দিন চলিয়া যাবে
ক্ষণ কাল পরে,
ঢলিবে মধ্যাহ্ণ সূর্য
পশ্চিমের অস্তচলে ---
আবার উদিবে রবি উদয় অচলে ---
স্মৃতি চিহ্ণ রবে যেন 
চিরকাল তরে ---
অক্ষয় -অব্যয় - অমর স্মৃতি 
রবে জয়ী চিরকাল জীবন সাগরে।

Comments

To comment on content, please Login!

Comments & Reviews (0)

No comments yet :(